4

ফেসবুক আইডি হ্যাক সমাচার

ফেসবুক নামক অখাদ্যটা আমাদের নিত্যদিনের অনুষঙ্গ হয়ে দাঁড়িয়েছে । তরুন প্রজন্মের কাছে এটা এখন একটা ফ্যাশন !  এক বেলা না খেলে চলবে কিন্ত ফেসবুকে না গেলে শান্তি আসে না এখন। কে না চায় নিজেকে অন্যভাবে উপস্থাপন করতে । অনেক দিনে হয়ত আইডিটাকে জনপ্রিয় করে তুলেছেন  লাইক আর কমেন্টের খেলা খেলে।  আপনার আবার কয়েক হাজার ফলোয়ারও আছে কিন্ত ।  😛  হঠাৎ করে যদি আইডিটা হারিয়ে ফেলেন মানে হ্যাক হয়ে যায় আর কি তখন আপনার অনুভূতি কেমন হবে চিন্ত করুন।   ইনবক্সে কত মাইয়া বা পোলার সাথে লুলামি করেছেন  কে জানে । হঠাৎ করে যদি স্ক্রীণশট আসতে থাকে আপনার আইডি থেকেই কেমন হবে, ঠিক  টক টকে তাই না।  সম্প্রতি কিন্ত কিছু সেলব্রেটিদের আইডি হ্যাক হওয়া ছাড়াই স্ক্রীণশট আসতে থাকে। যাইহজ্ঞা ঐ দিকে না যাই  চলে আসি মূল প্রসঙ্গে।  অতি সম্প্রতি ঘটে যাওয়া একটা উদাহরণ দেই। আমার এক ফ্রেন্ড এর ফেসবুক  আইডি হ্যাক হয়। পরিণামে তাকে ভয়াবহ রকমের উদ্ভুট পরিস্থিতিতে পড়তে হয়। তাই আইডি থেকে অশ্লীল সব স্ট্যাটাস দেয়। নোংরা ছবি পোষ্ট করে আবার ঐ ছবিতে মেয়েদের ট্যাগ করা হয় । এমনি কি আমারেও ট্যাগ করা হইছিল। শুধু এই সব করেই ক্ষান্ত হয় নি ভদ্রলোক আবার ইনববক্সে গিয়ে অনেকের সাথে সেই লেভেলের নোংরামী করছে। টাকাও দাবি করা হয় ফিরিয়ে দিবার জন্যে ।  🙁

ফেসবুক আইডি হ্যাক

ফেসবুক আইডি হ্যাক

তো কি কারনে ফেসবুক আইডি হ্যাক হতে পারে জেনে আসি।

১। ফিশিংঃ সহজ কথা দেখা গেল আপনার পরিচিত বা অপরিচিত কেউ একজন আপনাকে একটা লিংক দিয়ে বলল এটাতে যেতে । হতে পারে কোন লোভনীয় অফার এর কথা বলা হতে পারে। তো আপনি  কি করলেন ফেসবুকের মত দেখতে ঐ পেজটাতে লগ ইন করলেন। এই যে  ধরাটা খাইলেন আর কি।  এই ধরা খাওয়াটাকে বলে ফিশিং । নিচের লিঙ্কটা খেয়াল করুন।  :/

ফিশিং

ফিশিং

২। কী লগারঃ আপনার পিসিতে কোন কোন ভাবে কেউ এখন কী লগার ইমপ্লান্ট করতে পারে।  আপনি যে সব কী চাপবেন আপনার কীবোর্ড থেকে সব চলে যাবে অটোমেটিক যে ইমপ্লান্ট করেছেন তার দেওয়া কাঙ্ক্ষিত মেইলে। এটা হচ্ছে কী লগার । পাসওয়ার্ড পাবার উত্তম একটা উপায় যদিও আদি জিনিস সহজেই একে বোকা বানানো যায়।

৩। স্প্যাম লিঙ্কঃ হঠাৎ করে দেখা গেল আপনার ইনবক্সে বা হোম পেজে কিছু লোভনীয় লাইক টাকা ইনকাম,উদ্ভুট খবর, পর্ণ , বাজে খবর ইত্যাদি আসলে সহজাত প্রবৃত্তিতেই লিঙ্কে ক্লিক করলেন । কেল্লা ফতে ভাইয়া। লুলকে কেউ করিস নে লোভ আড়ালে তার হ্যাকার হাসে মনে রাইখেন কামে দিব। 😀

ইনবক্স স্প্যাম লিংক

ইনবক্স স্প্যাম লিংক

ওয়ালের স্প্যাম লিংক

ওয়ালের স্প্যাম লিংক

৪। ফেসবুক এপস ব্যবহারঃ ফেসবুকে গেমস বা অন্য কাজে অনেক সময়ই এপস ব্যবহার করি। তখন কিন্ত এপস আপনার ফেসবুকে ডিটেইলস চায়। অপরিচিত বা বেনামী এপসের জন্যেও আপনি সরল মনে দিয়ে দিলেন ফলাফল কি ঘটতে পারে বুঝতেই পারছেন নাকি।

৫। অন্য সাইটে ফেসবুক দিয়ে লগ ইনঃ অনেক সময় দেখা যায় বিভিন্ন সাইটে সহজে লগ ইন অপশন হিসেবে ফেসবুক লগ ইন ব্যবহার করা হয়। অপরিচিত সাইট যাদেররেপুটেশন ভাল না বা বাজে উদ্দেশে লোভী অফার দিয়ে আপনাকে ওদের সাইতে লগ ইন করতে বলা হলো আপনি তাই করে নিজের বিপদ ঢেকে আনলেন।

লগ ইন

লগ ইন

৬। ইমেইল আইডিঃ আপনার ইমেইল আইডি হ্যাক হলে খুব সহজেই রিসেট অপশন ব্যবহার করে যে কেউ আপনার ফেসবুকে লগ ইন করতে পারবে।

৭। গেজিং (ধারনা)ঃ আপনার পাসওয়ার্ড অনেক সময় ধারনা করেও কেউ আইডি দখল করতে পারে। কেমন সেটা তাই না। ধরুন আপনার উনার নাম আনিকা/যদু। প্রিয় মানুষটার নামেই পাসওয়ার্ড দিলেন ফলাফল বুঝুন । হতে পারে আপনার ফোন নাম্বার দিয়েছেন বা আপনার প্রিয় কিছু । যা সহজেই আপনার পরিচিত কেউ বা যাদের সাথে চ্যাট করেন তাদের কেউ জেনে থাকতে পারে। এর পর ধরুন Love, bangladesh, 123456789, birthday, child name, father name, fav place ইত্যাদি ইত্যাদি ব্যবহার করতে পারেন। উপহার হিসবে তখন আইডিটি হ্যাক হতেই পারে। 😀

৮। পীকিংঃ পীকিং মানে  কাঁধের উপর দিয়ে দেখা বা লুকিয়ে দেখা  । আপনার উনার সামনে বসে ফেসবুকে লগ ইন করলেন উনি কি করলেন চুপি সারে সেই পাসওয়ার্ড দেখে নিল। প্রয়োজনে সেটা কতটা ভয়ংকর হতে পারে বুঝতেই পারছেন।  একই ভাবে হয়ত ফ্রেন্ড বা অন্য কারো সামনে লগিন করার সময়ও আপনি আপনার পাসওয়ার্ড নিজের অজান্তেই দিয়ে দিতে পারেন।

পিকিং

পিকিং

৯। টোকেনঃ অনেক সাইটে দেখা যায় ফেসবুক এর এক্সেস টোকেন কপি করে পোস্ট করতে বলে। ঐ টোকেন দিয়ে কিন্তু এ্যাকাউন্ট একসেস নেওয়া যায়! যারা একটু বুদ্ধিমান বলদ শ্রেণী তারা বেশী এই ফাঁদে পা দেয় । তাছাড়া বিভিন্ন এ্যাপের ভিতরেও এই টোকেন গ্রাব করার সিস্টেম থাকে! ওরা আসলে এ্যাপই বানায় এই কাজ করার জন্য  লাইক your secret crush,  who want to date with you এই টাইপের।  

১০। ব্রাউজার এক্সপ্লোয়িটঃ  পুরাতন ভার্শন ব্রাউজার ব্যবহার করলে ঐখানে সিকুরিটি প্রবলেম  থাকে। যেমন একসময় ফ্লাশের এক্সপ্লোয়িট খুব জনপ্রিয় ছিল। বিভিন্ন এক্সপ্লোয়িট কিটের সাথে থাকতো… ব্লাক মার্কেটে ভালোই চলছিলো! ফ্লাশের এক্সপ্লোয়িট একটা উদাহরণ মাত্র… এইরকম অনেক ব্রাউজার এক্সপ্লোয়িট দিয়ে অনেক এ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে যায়। শুধুমাত্র  ফেসবুক না  ক্রেডিট কার্ড সহ অনেক গুরুত্বপূর্ন কিছু ! !

 

 

এইবার চলুন হ্যাক হওয়া থেকে বাঁচার তরিকা জেনে আসি

১। একাউন্ট  খোলার সময় এমন একটি পাসওয়ার্ড দিন যা অন্তত ৬ অক্ষরের। পাসওয়ার্ডটি শক্তিশালী করতে ক্যাপিটাল এবং স্মল লেটার ব্যবহার করুন এবং আরো নিরাপদ করতে সিম্পল ( #%&*!<@ ইত্যাদি ) ব্যবহার করুন।

২।   সন্দেহজনক লিংকে এ ক্লিক করবেন না। অনেক ফিশিং সাইট আছে যেগুলো  দেখতে হুবহু ফেসবুকের মত তাই লগিং করার আগে  url (https://www.facebook.com/)  দেখে নিবেন । হতে পারে প্রায় একটি  মাত্র একটা বর্ণ ভিন্ন । তো সাবধান।

৩।  মূলত ইমেল হ্যাকের কারনে অনেকেই ফেসবুক আইডি হারিয়ে থাকেন। ইমেইল হিসেবে জি মেইল এর ব্যবহারকে আমি প্রাধান্য দিব।    সবচেয়ে বেশি নিরাপত্তা দিচ্ছে  গুগল।  মেইলে মোবাইল ভেরিফিকেশন চালু করুন। তাহলে মোটামোটি নিশ্চিত থাকতে পারবেন।

৪। স্প্যাম লিঙ্কে আগ্রহ নিয়া ক্লিক করবেন না। আপনার সাধের আইডি কিন্ত হ্যাক হবার সম্ভবনা থাকে তাহলে । এমন কি নিজের ইজ্জত পাংচার করে দিতে পারেন। মানে নিজের অজান্তেই হয়ত নোংরা লিঙ্কে অন্যকে ট্যাগ করে দিতে পারেন। সাধু সাবধান! !

৫। ফেসবুক আইডিটি যদি ইমেইল ছাড়া শুধুমাত্র ফোন নাম্বার দিয়ে খুলে থাকেন  তবে সেটাতে এক বা একাধিক ইমেইল আইডি যোগ করে নিন আর  অবশ্যই ইমেইল  হাইড করে রাখুন।

৬।  যদি ইমেইল দিয়ে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলেন তবে, আপনি আপনার মোবাইল নাম্বারটি এড করে নিন, যেন প্রয়োজনের সময় তা লগইন করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে আর হ্যাঁ এক্ষেত্রেও অবশ্যই মোবাইল নাম্বার হাইড করতে ভুলবেন না ।
৭.  লাইক  বা কমেন্ট বেশি পাওয়ার আশায় অপরিচিত কাউকে বন্ধু না বানানোই উত্তম । কারন আপনার অনেক হ্যাকার আছে যারা আপনার বন্ধু হয়ে আপনার ফেসবুক আইডির তথ্যর জন্যে মাসের পর মাসের আপনার পিছনে পড়ে থাকবে। একবার প্রয়োজনীয় তথ্য পেলে কেল্লা ফতে। 😀

৮। Login Approvals Enable  করে রাখুন,এতে আপনি নিজে বা অন্য কেউ সেভ করা ব্রাউজার ছাড়া  অন্য কোথাও থেকে Login করতে চাইলে বা Hack করতে চাইলে আপনার মোবাইলে একটি 6 Digit এর Code ম্যাসেজ আসবে।  যদি স্মার্ট ফোন ব্যবহার  করে থাকে তারা চাইলে Code Generator On করে দিতে পারেন এক্ষেত্রে Facebook Apps এর Code Generator থেকে ও 6 Digit এর এই Code টি পাবেন এবং এটা অনেক কাজে লাগবে যখন ম্যাসেজ আসতে অনেক দেরী করে, তখন এবং শুধুমাত্র এই Code টি পাসওয়ার্ড এর ঘরে দিলেই Login হবে, অন্যথায় নয়।Login notifications অপশনটিও Enable করে রাখতে পারেন, এতে Login সংক্রান্ত ম্যাসেজ আপনার ফোন নাম্বারে চলে যাবে।

৯। ফেসবুকের কোন এপস ব্যবহারে পূর্বে অবশ্যই ঐ এপস সম্পর্কে ভাল ভাবে জেনে নিন। না জানতে পারলে গুগল তো আছেই নাকি।

১০। কোন সাইটে ফেসবুক দিয়ে লগ ইন করার পূর্বে অবশ্যই ঐ সাইটের বিশ্বস্ততা সম্পর্কে জেনে নিন প্রয়োজনে গুগলকে ধরুন।

১১। কীলগার বা ম্যালওয়ার থেকে মুক্তি পেতে হালনাগাতকরা এন্টিভাইরাস ব্যবহার করুন।

১২। পীকিং এর ব্যাপারে সাবধানতা অবলম্বন করুন। মানে পাসওয়ার্ড টাইপ করার সময় একটু সতর্ক থাকুন।

১৩। টোকেন এর ক্ষেত্রে  আনস্ট্রাস্টেড কোন সাইট যদি বলে এক্সেস টোকেন কপি করে পেস্ট করেন… তাহলে যেটি করবেন না।

১৪। ব্রাউজার সব সময় আপডেট রাখতে হবে। তাহলে এক্সপ্লোয়িট থেকে মুক্তির কিছুটা পথ পাওয়া যাবে।

১৫। অন্য কারো ব্রাউজার থেকে ঢুকলে অবশ্যই অবশ্যই লগ আউট করে আসবেন আর ইন করার সময় কী লগারকে বোকা বানানোর চেষ্টা করবেন। ধরুন pass হল Rakib আপনি লিখন DFRakff1ib লিখে এবার বাড়তি অংশগুলো মাউস দিয়ে সিলেক্ট করে ফেলে দিন।

১৬। আর ফেসবুক ট্রাস্ট্রেড কন্ট্রাক্ট নামে একটা অপশন আছে চারজন ট্রাস্ট্রেড কনট্রাক্ট যুক্ত করে দিন।

হেই আশা করি উপরে লিখা গুলো হজম করে ফেলেছেন । তাহলে মেনে চলার চেষ্টা করুন তাহলে আপনার আইডি হ্যাক হবার সম্ভাবনা অনেকাংশে কমে যাবে। যদিও অনলাইনে একটা কথা প্রচলিত যে Nothing is secured.

পুনশ্চ: লিখতে গিয়ে ব্যাপক হারে সহায়তা করেছেন বাংলাদেশ সাইবার আর্মির  মারুফ আলম ভাই  এবং খুব ভদ্র ও লাজুক আরমান ভাই।  ফেসবুক আইডি এই শব্দটার বাংলা করতে আমি আর আরমান ভাই ব্যাপক গবেষণা চালিয়েছি কিন্ত ভাল কোন উপসংহারে পৌছাতে পারি নাই। একটু বিনোদিত হয়ে আসতে পারেন

112123

কারো কাছে যদি সুন্দর বাংলা থাকে তাহলে শেয়ার করার জন্যে অনুরোধ করা হচ্ছে। 😛

মনজু
 

Click Here to Leave a Comment Below 4 comments
Sanjida - November 15, 2015

ভালো লাগলো।

Reply
    মনজু - February 10, 2016

    ধন্যবাদ আপু। 🙂

    Reply
md shakil khan - January 19, 2017

good

Reply
    মনজু - September 18, 2017

    @shakil ভাই ধন্যবাদ। 🙂

    Reply

Leave a Reply:

%d bloggers like this: